শুক্রবার, জানুয়ারি ২৭, ২০২৩
spot_img
Homeছেলেদের রুপচর্চাযে খাবার গুলো ছেলেদের স্বাস্থের জন্য উপকারী

যে খাবার গুলো ছেলেদের স্বাস্থের জন্য উপকারী

যে খাবার গুলো ছেলেদের স্বাস্থের জন্য উপকারী

কোন খাবার খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো এবং কোন খাবারটি ভালো নয় তা নিয়ে ছেলে মানুষ একটু কমই মাথা ঘামিয়ে থকেন।

বিশেষ করে তখন যখন তার খাবার নিয়ে ভাবার মতো খেয়াল করার মতো কেউ না থাকে।

বেশিরভাগ  পুরুষই কাজের কারণে এবং জীবনের প্রয়োজনে ঘর থেকে বাইরে থাকেন  দিনের বেশীরভাগ সময়। সে সময় যদি বুঝে শুনে না খান তবে এতে শরীরের ক্ষতি হয় অনেক বেশি। বাইরে খাবারের কারণে সে সমস্যায় ভুগতে বেশি হয়ে থকে  তা হলো গ্যাস্ট্রিক, আলসার এবং পাকস্থলীর ক্যান্সার।

এই রকম  ঝামেলা এড়াতে অবশ্যই বুঝে শুনে খাবার খাওয়া উচিৎ। সুস্থ থাকার জন্য কিছুটা ঝামেলা হলেও তৈরি করা উচিৎ ভালো খাদ্যাভ্যাসের। চলুন তাহলে দেখে নিই এমন ৫ টি খাবার যা নিয়মিত খাওয়া উচিৎ সকল পুরুষের।

টমেটো:

সুপারফুড বলা হয়ে থাকে টমেটোকে । টমেটোর পুস্টিগুনের জন্যই দেওয়া হয়েছে এই নাম। টমেটোতে রয়েছে ‘লাইকোপিন’। লাইকোপিন কলোরেক্টাল ক্যান্সার, পাকস্থলীর ক্যান্সার, হৃদপিণ্ডের সমস্যা এবং দেহের কলেস্টোরল কমাতে বেশ সহায়ক একটি সবজি। তাই প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় অবশ্যই টমেটো রাখা প্রয়োজন।

গোটা শস্য:

লাল চাল, ওটস এবং গমের আটা জাতীয় গোটা শস্য স্বাস্থ্যের জন্য খুবিই উপকারী খাদ্য। এই সকল গোটা শস্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, মিলারেল, ফোলাইট, বায়োটিন এবং ফাইবার। এই সকল শস্যের ভিটামিন বি বিষণ্ণতা দূর করতে এবং বায়োটিন চুল পরা রোধে বেশ কার্যকর। এছাড়াও গবেষণায় পাওয়া গিয়েছে ফোলাইট পুরুষের যৌন স্বাস্থ্য ভালো রাখে।

রসুন:

কাঁচা রসুন বিশেষ করে ছেলেরা তো এই জিনিসটি একেবারেই পছন্দ করেন না। কিন্তু প্রতিদিন কাঁচা রসুন খেলে পুরুষেরা হৃদপিণ্ডের সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া যায়। কারণ কাঁচা রসুন দেহের কলেস্টোরলের মাত্রা কমায়।

ব্রকলি:

ব্রকলিও সবার কাছে বেশ অপছন্দের একটি খাবার। কিন্তু ব্রকলি এবং ব্রকলি জাতীয় খাবার যেমন, পাতাকপি, বাঁধাকপি, অঙ্কুরিত সিমের বীচি ইত্যাদিতে রয়েছে ক্যান্সার প্রতিরোধকারী উপাদান ‘সালফোরাফেইন’। এই উপাদানটি পুরুষদের দেহে মুত্রথলির ক্যান্সার, পাকস্থলীর ক্যান্সার এবং কলোরেক্টাল ক্যান্সার প্রতিরোধে কাজ করে।

ডিম:

পুরুষেরা বেশীরভাগ সময় চুল পরে যাওয়ার সমস্যায় ভুগে থাকেন। এবং পুরুষদের মাথাতেই টাকের সমস্যা বেশি হয়ে থকে । ডিম এই সমস্যা থেকে রেহাই দিয়ে থকে। ডিমের উচ্চ মাত্রার প্রোটিন চুল পরা বন্ধ করে এবং নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। ডিমের কুসুম দেহে আয়রনের অভাব পূরণে সহায়তা করে।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments

ABUL HOSAIN on BMTF Job Circular 2022