শনিবার, জানুয়ারি ২৮, ২০২৩
spot_img
Homeত্বকের যত্নগরমে ত্বক ঠিক রাখতে

গরমে ত্বক ঠিক রাখতে

গরমে সুস্থতার জন্য ত্বকের বাড়তি যত্ন-আত্তি নেওয়া যেমন জরুরি, তেমনি জানতে হবে সাজগোজের কলাকৌশলও। রূপবিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন জানাচ্ছেন কীভাবে গরমে ত্বক ঠিক রাখবেন।

গরমে ত্বক ঠিক রাখতে

গরমে ত্বক ঠিক রাখতে-

সানবার্ন

* সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত সূর্যের তাপ বেশি থাকে। এ সময় রোদে বের হলে আগে মুখ ও ত্বকের খোলা অংশে সানস্ক্রিন লাগান। তবে বাইরে বের হওয়ার অন্তত আধা ঘণ্টা আগে সানস্ক্রিন লাগাবেন। একটানা ৬ ঘণ্টার বেশি বাইরে থাকলে পুনরায় মুখ ধুয়ে আবার সানস্ক্রিন লাগাতে হবে।

* সানস্ক্রিন লাগানোর পরও রোদে ছাতা, সানগ্লাস ও ক্যাপ ব্যবহার করুন। রোদ থেকে ফিরে সঙ্গে সঙ্গে ঠাণ্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এক টুকরো বরফ ঘষলেও উপকার পাবেন।

* তার পরও সানবার্ন হলে কমলালেবুর খোসা গুঁড়া করে কাঁচা দুধের সঙ্গে মিশিয়ে মুখ, ঘাড় ও গলায় ৫ মিনিট রাখুন। হালকা ঘষে ধুয়ে ফেলুন। সানবার্ন কমে যাবে।

* রোদে পোড়া দাগ কমাতে মধু, টক দই ও লেবুর রস সমপরিমাণে মিশিয়ে ১৫-২০ মিনিট ত্বকে রেখে ধুয়ে ফেলুন।

ঘামাচি

* গরম, আর্দ্রতা ও ঘামের কারণে মরা কোষ ও ব্যাকটেরিয়া জমে ঘামগ্রন্থির মুখ বন্ধ হয়ে যায়। ঘামাচি এড়াতে ত্বক সব সময় শুকনো রাখতে চেষ্টা করুন। গোসলের পর শরীর মুছে ভালো করে শুকিয়ে নিন।

* ঢিলেঢালা সুতির হালকা রঙের কাপড় পরুন। পরিষ্কার অন্তর্বাস ব্যবহার করুন।

* প্রিকলি হিট পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। তেলসমৃদ্ধ লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করবেন না। নখ দিয়ে খুটবেন না, এতে সংক্রমণ হতে পারে।

* ঘামাচি বেশি হলে চন্দন গুঁড়া ও গোলাপজলের পেস্ট বানিয়ে লাগান। ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। নিমপাতা পানিতে ফুটিয়ে সেই পানি দিয়ে গোসল করতে পারেন।

ব্রণ বা অ্যাকনে

* গরমে ব্রণের মাত্রা বেড়ে যায়। ব্রণ এড়াতে সপ্তাহে তিন-চার দিন আধা কাপ চিরতার পানি, একটা কাঁচা হলুদ ও ১ চা চামচ আখের গুঁড় খেতে পারেন।

* বাইরে থেকে ফিরে ফেসওয়াস বা ক্লিনজার দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুদিন গরম পানির বাষ্প নিতে পারেন। এতে ত্বকে জমে থাকা ধুলাবালি পরিষ্কার হয়ে যাবে।

* ত্বক পরিষ্কার রাখতে নিমপাতা, হলুদ, চিরতা ও মুলতানি মাটি এক সঙ্গে মিলিয়ে পেস্ট বানিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

* দারুচিনি গুঁড়ার সঙ্গে সমপরিমাণ মধু মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।

শুধু ব্রণের ওপর লাগিয়ে ঘুমুতে যান। ব্রন দ্রুত কমে যাবে।

স্ক্যাল্পে ঘাম ও খুশকি

* খুশকির জন্য সপ্তাহে দুই দিন মেডিকেটেড শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। বাকি দিনগুলোতে চুলের ধরন অনুযায়ী শ্যাম্পু বেছে নিন। শ্যাম্পুর পর অবশ্যই কন্ডিশনার লাগাবেন।

* গোসলের এক ঘণ্টা আগে নারকেল তেলের সঙ্গে সমপরিমাণ লেবুর রস মিশিয়ে মাথার ত্বকে লাগান। খুশকি থেকে রেহাই পাবেন।

* এক চামচ কর্পূর এক কাপ পানিতে মিশিয়ে মাথার ত্বকে ব্যবহার করুন। চুলটা ভালো করে শুকিয়ে নিন। ঘাম ও খুশকি উভয় কমবে।

* মাথার ত্বকে যদি চুলকানি হয়, তবে নিমপাতা, হলুদ ও চিরতা এক সঙ্গে বেটে মাথার ত্বকে কিছুক্ষণ লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments

ABUL HOSAIN on BMTF Job Circular 2022